করোনার টিকা আসতে পারে এ বছরের শেষে: ডব্লিউএইচও-প্রধান

প্রকাশিত: ৬:৫৯ পূর্বাহ্ণ, অক্টোবর ৭, ২০২০ | আপডেট: ৬:৫৯:পূর্বাহ্ণ, অক্টোবর ৭, ২০২০
ডব্লিউএইচওর নির্বাহী বোর্ডের বৈঠকে মহাপরিচালক তেদরোস আধানোম গেব্রেয়াসুসছবি: রয়টার্স

লন্ডন টাইমস নিউজ জেনেভা।করোনার নিরাপদ ও কার্যকর টিকার দিকে তাকিয়ে আছে পুরো বিশ্ব। এই লক্ষ্যে অনেকটা সময়ের সঙ্গে পাল্লা দিয়ে কাজ করছেন বিজ্ঞানীরা। এমন প্রেক্ষাপটে আশার কথা শুনিয়েছেন বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার (ডব্লিউএইচও) প্রধান। তিনি বলছেন, চলতি বছরের শেষ নাগাদ করোনাপ্রতিরোধী টিকা পাওয়া যেতে পারে।

বার্তা সংস্থা রয়টার্সের প্রতিবেদনে জানানো হয়, গতকাল মঙ্গলবার ডব্লিউএইচওর মহাপরিচালক তেদরোস আধানোম গেব্রেয়াসুস করোনার টিকা পাওয়া নিয়ে এই আশার কথা বলেন।

একটি নিরাপদ ও কার্যকর করোনার টিকা চলতি বছরের শেষ নাগাদ পাওয়া নিয়ে আশার কথা শোনালেও এ বিষয়ে কোনো ব্যাখ্যা দেননি ডব্লিউএইচওর মহাপরিচালক।

করোনা মহামারি নিয়ে ডব্লিউএইচওর নির্বাহী বোর্ডের দুই দিনের বৈঠকের সমাপনীতে দেওয়া বক্তৃতায় তেদরোস আধানোম গেব্রেয়াসুস বলেন, ‘আমাদের টিকা লাগবে। চলতি বছরের শেষ নাগাদ আমরা একটা টিকা পেতে পারি বলে আশা করা যায়। আশা আছে।’

করোনার টিকা পাওয়া গেলে তার সমবণ্টন নিশ্চিত করার লক্ষ্যে বিশ্বের সব নেতার একাত্মতা ও রাজনৈতিক অঙ্গীকারের আহ্বান জানান ডব্লিউএইচওর মহাসচিব।

তেদরোস আধানোম গেব্রেয়াসুস বলেন, ‘আমাদের একে অপরকে দরকার। আমাদের সংহতি দরকার। আমাদের যত শক্তি আছে, তার সবটুকু ভাইরাসের বিরুদ্ধে লড়াইয়ে ব্যবহার করা দরকার।’

ডব্লিউএইচওর নেতৃত্বাধীন ‘কোভ্যাক্স’ নামের বৈশ্বিক উদ্যোগ পরীক্ষামূলক ৯টি টিকার ওপর নজর রাখছে। এই টিকাগুলো পরীক্ষার চূড়ান্ত ধাপে রয়েছে।

‘কোভ্যাক্স’ উদ্যোগের মাধ্যমে ২০২১ সালের শেষ নাগাদ বিশ্বে ২০০ কোটি ডোজ টিকা দেওয়ার লক্ষ্য নির্ধারণ করা হয়েছে।