বরিশালে রাতভর আটকে রেখে ধর্ষণের অভিযোগে কিশোরীর মামলা

প্রকাশিত: ৮:১৩ পূর্বাহ্ণ, অক্টোবর ১৪, ২০২০ | আপডেট: ৮:১৪:পূর্বাহ্ণ, অক্টোবর ১৪, ২০২০

এলটিএন বরিশাল ।বরিশালের মেহেন্দীগঞ্জ উপজেলায় রাতভর আটকে রেখে ধর্ষণ ও চাঁদাবাজির অভিযোগে নববিবাহিত কিশোরী (১৭) মেয়ে মামলা করেছে। মঙ্গলবার বিকেলে কাজীরহাট থানায় কিশোরী বাদী হয়ে মামলা করে। মামলায় তিনজনের নাম উল্লেখ করে মোট পাঁচজনকে আসামি করা হয়েছে।

কাজীরহাট থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সাজ্জাদ হোসেন বলেন, এ ঘটনায় মঙ্গলবার বিকেলে ধর্ষণের অভিযোগে মামলা হয়েছে। আসামিদের গ্রেপ্তারে অভিযান চলছে।

মামলার এজাহারে বলা হয়েছে, কিশোরীকে রোববার সারা রাত আটকে রেখে তিন যুবক ধর্ষণ করেন। পরে স্থানীয় ইউনিয়ন পরিষদ (ইউপি) সদস্য কিশোরীকে উদ্ধার করে পরিবারের কাছে হস্তান্তর করেন। ওই ইউপি সদস্য অভিযুক্ত যুবকদের ২০ হাজার টাকা করে জরিমানা করে বিষয়টি মীমাংসার চেষ্টা করেন।

কিশোরীর ভাইয়ের ভাষ্য, তিন মাস আগে পারিবারিকভাবে কিশোরীর বিয়ে হয়। তার স্বামী ঢাকায় থাকেন। রোববার রাত ১২টার দিকে প্রতিবেশী রাজিব ওই কিশোরীকে কথা আছে বলে বাড়ি থেকে ডেকে নিয়ে যান। রাজিবের ঘরে আগে থেকেই ছিলেন তাঁর বন্ধু নাজমুল ও বাবু। এরপর স্থানীয় ফারুক ভূঁইয়া নামের এক ব্যক্তি বাইরে থেকে ওই ঘরের দরজা আটকে দেন। পরিবারের লোকজন খোঁজ করে কিশোরীকে না পেয়ে স্থানীয় আন্ধারমানিক ইউনিয়নের ২ নম্বর ওয়ার্ডের (ইউপি) সদস্য পরান ভূঁইয়াকে জানান। ইউপি সদস্য পরান ভোর ৪টার দিকে রাজিবের বাড়িতে গিয়ে কিশোরীকে উদ্ধার করে পরিবারের কাছে দিয়ে যান। এরপর তিনি ওই তিন যুবকের পরিবারকে ডেকে এ ঘটনায় ২০ হাজার টাকা করে জরিমানা করেন। তবে কিশোরীর পরিবার বিষয়টি মেনে নিতে চায়নি বলে ভাইয়ের দাবি।

স্থানীয় দুই ব্যক্তির ভাষ্য, স্থানীয় একজনের সঙ্গে কিশোরীর প্রেমের সম্পর্ক ছিল। কিন্তু পরিবার তাকে অন্য ছেলের সঙ্গে বিয়ে দেয়। এতে ক্ষুব্ধ হয়ে ওই যুবক রাজিবকে দিয়ে এ ঘটনা ঘটিয়ে থাকতে পারেন বলে তাদের ধারণা।
কিশোরী তার করা মামলায় বাবু হাওলাদার, নাজমুল হোসেন ও রাজিব ফকিরের নাম উল্লেখ করেছে।