কাফনের কাপড় পরে প্রচারে বিএনপি প্রার্থী শওকত

প্রকাশিত: ৮:৪৩ পূর্বাহ্ণ, অক্টোবর ১৯, ২০২০ | আপডেট: ৮:৪৩:পূর্বাহ্ণ, অক্টোবর ১৯, ২০২০

বাকেরগঞ্জ (বরিশাল) প্রতিনিধি  ।বরিশালের বাকেরগঞ্জ উপজেলার কলসকাঠীতে ইউনিয়ন পরিষদের উপনির্বাচনে বিএনপির মনোনীত চেয়ারম্যান প্রার্থী শওকত হোসেন হাওলাদার কাফনের কাপড় পরে নির্বাচনী প্রচার শুরু করেছেন।

নির্বাচনী কার্যালয় ভাঙচুর ও নেতাকর্মীদের ওপর হামলার ঘটনায় রোববার সন্ধ্যা থেকে কাফনের কাপড় গায়ে জড়িয়ে সুষ্ঠু নির্বাচনের দাবিতে তিনি এ প্রচার শুরু করেন। সোমবার সকালেও তার এ কর্মসূচি অব্যাহত রয়েছে।

এর আগে শনিবার সন্ধ্যায় তার কার্যালয়ে হামলা ও ভাঙচুরের ঘটনা ঘটে।

তবে আওয়ামী লীগ নেতাকর্মীরা বলছেন, বিএনপির লোকজন আওয়ামী লীগ কার্যালয় এবং বঙ্গবন্ধু ও প্রধানমন্ত্রীর ছবি ভাঙচুর করে উল্টো কাফনের কাপড় পরে জনগণকে ব্লাকমেইল করার অপচেষ্টা করছেন বিএনপির চেয়ারম্যান প্রার্থী শওকত হোসেন হাওলাদার।

বিএনপির চেয়ারম্যান প্রার্থী শওকত হোসেন হাওলাদার অভিযোগ করে বলেন, নিবার্চন বানচাল করতে তার নির্বাচনী কার্যালয় ভাঙচুর করছেন আওয়ামী লীগ-ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা।

তবে এ অভিযোগ অস্বীকার করে আওয়ামী লীগের প্রার্থী ফয়সাল ওয়াহিদ মুন্না জানান, কলসকাঠী বাজারে তাদের শেষ নির্বাচনী প্রচার মিছিল চলকালে বিএনপির কর্মী-সমর্থকরা আওয়ামী লীগের অফিস ও বঙ্গবন্ধুর ছবি ভাঙচুর করেছে। এতে তার তিন কর্মী আহত হয়েছেন।

এখন উল্টো কাফনের কাপড় পরে জনগণকে ব্লাকমেইল করার অপচেষ্টা করছে। এতে শেষ রক্ষা হবে না নির্বাচনে আমাদের জয় আসবে।

জানা যায়, শনিবার সন্ধ্যায় আওয়ামী লীগ-বিএনপির প্রার্থীর সমর্থকদের মধ্যে হামলা-পাল্টাহামলার ঘটনা ঘটে।

আওয়ামী লীগ দাবি করেছে, বিএনপির লোকজন আওয়ামী লীগ কার্যালয় ও বঙ্গবন্ধুর ছবি ভাঙচুর করেছে।

তবে বিএনপির চেয়ারম্যান প্রার্থী শওকত হোসেন হাওলাদার বলছেন, আওয়ামী লীগ প্রার্থীর সমর্থকরা বিএনপির নির্বাচনী কার্যালয়ে হামলা করলে উভয়পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় উভয়পক্ষের কমপক্ষে পাঁচজন আহত হয়েছেন।

উল্লেখ্য, আগামীকাল মঙ্গলবার এ ইউনিয়নে চেয়ারম্যান পদে উপনির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। এ নির্বাচনে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী ফয়সাল ওয়াহিদ মুন্না ও বিএনপির প্রার্থী উপজেলা বিএনপির সহসভাপতি শওকত হোসেন হাওলাদার।