যমুনায় ইলিশ ধরার দায়ে ৮ জনের জরিমানা

প্রকাশিত: ৮:৪৭ পূর্বাহ্ণ, অক্টোবর ১৯, ২০২০ | আপডেট: ৮:৪৭:পূর্বাহ্ণ, অক্টোবর ১৯, ২০২০

মানিকগঞ্জ প্রতিনিধি।নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে মানিকগঞ্জের দৌলতপুর উপজেলায় যমুনা নদীতে ইলিশ শিকারের দায়ে ৮ জনকে ২০ হাজার টাকা জরিমানা করেছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত। এ সময় তাঁদের কাছ থেকে ১৯ কেজি ইলিশ জব্দ করা হয়। সোমবার সকালে ভ্রাম্যমাণ আদালতের বিচারক ও উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) জুয়েল আহমেদ এই সাজা দেন।

উপজেলা প্রশাসন সূত্রে জানা গেছে, ইলিশের নিরাপদ প্রজনন ও বংশবৃদ্ধির জন্য ১৪ অক্টোবর থেকে ৪ নভেম্বর পর্যন্ত ২২ দিন ইলিশ প্রজননক্ষেত্রে সব ধরনের মৎস্য আহরণ নিষিদ্ধ ঘোষণা করেছে সরকার। এ সময় দেশব্যাপী ইলিশ আহরণ, বিপণন, পরিবহন, ক্রয়-বিক্রয়, বিনিময় ও মজুতও নিষিদ্ধ করা হয়েছে।

তবে এই নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে রোববার রাতে দৌলতপুরের চরকাটারি, বাচামারা ও বাঘুটিয়া এলাকায় যমুনা নদীতে জাল ও নৌকা দিয়ে ইলিশ শিকার করছিলেন স্থানীয় বেশ কয়েকজন শৌখিন মৎস্যশিকারি। খবর পেয়ে পুলিশের সহযোগিতায় উপজেলা মৎস্য বিভাগের লোকজন নদীতে অভিযান চালিয়ে ওই আটজনকে আটক করেন। এ সময় তাঁদের কাছ থেকে ১৯ কেজি ইলিশ জব্দ করা হয়। পরে সোমবার সকালে ওই ৮ জনকে ভ্রাম্যমাণ আদালতে হাজির করা হয়। এ সময় ভ্রাম্যমাণ আদালতের বিচারক জুয়েল আহমেদ তাঁদের মোট ২০ হাজার টাকা জরিমানা করেন।

উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) জুয়েল আহমেদ বলেন, জব্দ করা ১৯ কেজি ইলিশ স্থানীয় মাদ্রাসা ও এতিমখানায় বিতরণ করা হয়েছে। এই অভিযান আগামী ৪ নভেম্বর পর্যন্ত অব্যাহত থাকবে।