অবঃ ক্যাপ্টেন মোস্তফা ওয়াহিদের দুই মেয়ে ২১দিন ধরে বাবার বাড়ির বাইরে অবস্থানঃঢুকতে দেয়া হচ্ছেনা

প্রকাশিত: ১০:৪৪ অপরাহ্ণ, অক্টোবর ২৫, ২০২০ | আপডেট: ১০:৪৪:অপরাহ্ণ, অক্টোবর ২৫, ২০২০

এলটিএন ঢাকা।বাবার সম্পত্তির অধিকার ফিরে পেতে আইনি পদক্ষেপ নেয়ার কথা ভাবছেন দুই বোন- মুশফিকা মোস্তফা এবং মোবাশশারা মোস্তফা। তারা বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের অবসরপ্রাপ্ত ক্যাপ্টেন মোস্তফা জগলুল ওয়াহিদের মেয়ে।

গুলশান ২ নম্বরের ৯৫ নম্বর রোডে অবস্থিত একটি বিলাসবহুল তিনতলা বাড়ির মালিক তাদের বাবা ওয়াহিদ। ১০ অক্টোবর ওয়াহিদ মারা যাওয়ার পর শত কোটি টাকার এ সম্পত্তি নিজের বলে দাবি করছেন অঞ্জু কাপুর নামের এক নারী। তিনি নিজেকে ওয়াহিদের স্ত্রী বলেও দাবি করছেন। ওয়াহিদের দুই মেয়েকে ওই বাড়িতে ঢুকতে দেয়া হচ্ছে না।

টানা ২১ দিন (শনি ও রোববার) গেটের সামনে অবস্থান করেও তারা বাড়িতে প্রবেশ করতে পারেননি। বিষয়টি নিয়ে গুলশান থানায় একাধিক জিডি ও অভিযোগ দেয়া হলেও কোনো কাজ হয়নি। এ কারণেই আইনি পদক্ষেপের কথা ভাবছেন ওয়াহিদের দুই মেয়ে।

রোববার সন্ধ্যায় মুশফিকা মোস্তফা জানান, আমরা এখনও বাড়ির সামনে অবস্থান করছি। শনিবার রাতে ৯৯৯-এ ফোন করে অঞ্জু কাপুর পুলিশ পাঠিয়েছিল। কিন্তু আমরা শান্তিপূর্ণভাবে বসে থাকায় পুলিশ কিছু বলেনি। বাড়িতে প্রবেশের জন্য পুলিশের সহায়তা চাইলেও পুলিশ সহায়তা করেনি। আজ (রোববার) দুপুরেও পুলিশ এসেছিল।

তিনি বলেন, শনিবার রাতে বিষয়টি নিয়ে একটি টেলিভিশন টকশোতে আলোচনা হয়। ওই সময় টেলিফোনে ওই টকশোতে আমি যুক্ত ছিলাম। সেখানে অঞ্জু কাপুরের আইনজীবীর বক্তব্য অনুযায়ী, বাড়িটিতে দুই-তৃতীয়াংশ ভাগ আমাদের আছে। কাপুরের আইনজীবী নিজেই যেখানে আমাদের অধিকারের কথা স্বীকার করেছেন সেখানে কেন আমাদের ওই বাড়িতে প্রবেশ করতে দেয়া হচ্ছে না? তিনি বলেন, মামলা-মোকদ্দমায় ঝুলিয়ে রেখে বাড়ির মূল্যবানসামগ্রী পাচার বা নষ্ট করে সেগুলোর অধিকার থেকে আমাদের বঞ্চিত করার চেষ্টা চলছে। তিনি আরও বলেন, আমাদের আইনের পথে ঠেলে দেয়া হচ্ছে। বাধ্য হয়েই আমরা আইনগত পদক্ষেপের দিকে যাচ্ছি। আগামীকাল (সোমবার) বিষয়টি নিয়ে আমরা আইনজীবীর সঙ্গে পরামর্শ করে পরবর্তী ব্যবস্থা নেব।

জানতে চাইলে গুলশান থানার ওসি আবুল হাসান বলেন, বিষয়টি নিয়ে দু’পক্ষই জিডি করেছে। ওয়াহিদের দুই মেয়ে বাড়িতে প্রবেশের জন্য সহযোগিতা চাচ্ছেন। অন্যদিকে অঞ্জু কাপুরের অভিযোগ- মুশফিকা ও মোবাশশারা মিলে বাড়িটি দখল করতে চাচ্ছেন। এদিকে দেওয়ানি বিষয় হওয়ায় পুলিশ তেমন কিছু করতে পারছে না। বিষয়টি নিয়ে ফৌজদারি মামলা হলে বা এ সংক্রান্ত আদালতের কোনো নির্দেশ এলে পুলিশ সে অনুযায়ী ব্যবস্থা নেবে। এছাড়া অনাকাক্সিক্ষত ঘটনা এড়াতে পুলিশ বাড়িটি ঘিরে সার্বক্ষণিক নজরদারি রাখছে।