ত্যক্ত বিরক্ত হয়ে কোটি টাকার মার্সিটিজ নিজেই পুড়িয়ে ফেলেন(ভিডিও)

প্রকাশিত: ১০:৪৪ অপরাহ্ণ, নভেম্বর ২, ২০২০ | আপডেট: ১০:৪৪:অপরাহ্ণ, নভেম্বর ২, ২০২০

ইউটিউব সংবাদ।গত কয়েকদিন ধরে ইউটিউবে ভাইরাল একটি ভিডিও। যেখানে দেখা গেছে, স্ন্যাকস খেতে খেতে আয়োজন করে কয়েক কোটি টাকা দামের একটি মার্সিডিজ গাড়ি পুড়িয়ে দিলেন এক যুবক।

ঘটনার ভিডিও দেখে লাখ লাখ দর্শক স্তম্ভিত হয়ে পড়ে। ইতোমধ্যে এক কোটি ১০ লাখেরও বেশিবার ভিউ হয়েছে ভিডিওটি।

বিষয়টি আন্তর্জাতিক গণমাধ্যমের শিরোনামেও এসেছে।  জানা গেছে, ঘটনাটি ঘটেছে রাশিয়ায়।

স্থানীয় ওয়েবসাইট ভিসি ডটআরইউয়ের বরাতে ভারতের সংবাদমাধ্যম এনডিটিভি জানিয়েছে, গাড়িটি পুড়িয়ে ফেলা সেই যুবকের নাম মিখাইল লিৎভিন।  তিনি একজন রুশ ইউটিউবার। প্রায় ৩ কোটি টাকা মূল্যের দাম দিয়ে গাড়িটি কিনেছিলেন লিৎভিন।  আর হতাশা ও বিরক্তি থেকেই নাকি নিজের এই দামি গাড়িকে খালি মাঠে পুড়িয়ে ছাই করে ফেলেন এই রুশ যুবক।

আর পেট্রল দিয়ে গাড়িটি পেড়ানোর ভিডিও ইউটিউব ও ইনস্টাগ্রামে ছেড়ে দেন লিৎভিন।

ভিডিওতে দেখা গেছে, গাড়িটি যখন পুড়ছিল অদূরে বসে স্ন্যাকস বানিয়ে খাচ্ছিলেন লিৎভিন। পোড়ানো শেষে অন্য একটি সাধারণ গাড়িতে চলে যান তিনি।

নিজের দামি গাড়ি পোড়ানোর কারণ হিসেবে জানা গেছে, মার্সিডিজ-এএমজি জিটি ৬৩ এস গাড়িটি কেনার পর থেকেই একের পর এক ঝামেলায় পড়তে থাকেন লিৎভিন। বেশ কয়েকবার এতে কারিগড়ি ত্রুটির দেখা দেয়।

ওয়েবসাইট ভিসি ডটআরইউ জানিয়েছে, গাড়িটি ৫ বার ডিলারের দোকানে পাঠাতে হয় তাকে। প্রতিবারই ঠিক করার পর ফের নতুন সমস্যায় পড়তে হয় তাকে। কেনার পর নাকি এভাবে ৪০ দিনের বেশি সময় ওয়ার্কশপেই পড়েছিল গাড়িটি। ইঞ্জিন সমস্যা ঠিক করতে জার্মানি থেকে নতুন টারবাইন এনে বদল করা হয়। কিন্তু তাতেও সমস্যা মেটেনি। এক সময় ডিলারের দোকান লিৎভিনের ফোন রিসিভ করা বন্ধ করে দেয়।  এর পরই ক্ষোভে, হতাশায় রুশ এ ইউটিউবার গাড়িটি জ্বালিয়ে দেয়ার সিদ্ধান্ত নেন।

ভিডিওটি দেখুন –