আনোয়ার আল ফারুক’র একগুচ্ছ কবিতা

প্রকাশিত: ১২:০৮ পূর্বাহ্ণ, জুলাই ৫, ২০২০ | আপডেট: ১২:০৮:পূর্বাহ্ণ, জুলাই ৫, ২০২০
এক।
তোমার অপেক্ষায়
…..
আমি জানি,
ঠিক সময়েই তুমি এসে আমার দরজায় কড়া নাড়বে,
তোমার আসার অপেক্ষায় আমি প্রহর গুনছি।
একসময় তোমার কথা শোনলেই আঁতকে উঠতাম আর ভয়ে তটস্থ হয়ে সমস্ত দেহজুড়ে ছিকন ঘামে ভেজে যেতাম আর এখন নিরবে অপেক্ষা করছি তোমাকে সানন্দে গ্রহণ করতে।
তুমি কোন এক সুসময়ে এসে হাজির হবে এটা আমার প্রত্যাশা নয় একান্তই বিশ্বাস,
তবে হ্যাঁ, তুমিও উপরের সবুজ সংকেতের অপেক্ষায় আছ;
উপরের সংকেত পেলে তুমি এক সেকেন্ডের কোটি ভাগের চেয়েও কম সময়ে এসে হাজির হবে আমার আলিঙ্গনে।
তুমি এসো বন্ধু, তবে আসবেই যখন সুসময়েই এসো আর কোমল স্পর্শেই আমাকে আলিঙ্গন করো, দোহাই আমার প্রতি নিষ্ঠুর হয়ো না।
তোমার হাতে থাকা পরোয়ানাখানি আমাকে স্বহাস্যবদনে পড়ে শুনিয়ে নরম কোমল স্পর্শে আমাকে নিয়ে যেও আমার মহান রবের কাছে আর আমার রুহকে জমা দিও প্রশান্ত রুহদের সারি ইল্লিনে।
দুই।
জীবন
…..
নিরবে নিভৃতে যায় বয়ে যায় সময়ের চাকা,
সেকেন্ডের সমন্বয়ে মিনিট তারপর ঘন্টা দিন মাস বছর,
সময় কেবলই আপেক্ষিক, ছোট কালে বলতাম কবে যে বড় হব! আর এখন শুধু আক্ষেপ কেন যে বড় হলাম? যদি ফিরে যেতে পারতাম সেই সোনালী শৈশবে!
রাতের আঁধার কেটে কেটে সূর্য আলোর প্রভাত নিয়ে আসে ফের অস্তমিত হয়ে কালের গর্ভে টেনে নেয় পৃথিবীর একেকটা দিন।কালের গর্ভে বিলীন হওয়া সময় আর ফিরে পাওয়া যায় না, এটাই পৃথিবীর চিরায়ত শ্বাশত নিয়ম।
জীবনের প্রবাহমান ধারা ধেয়ে চলছে ঐশ্বরিক আমোঘ ঘোষণায়,যাকে কখনো ফ্রেমে বাঁধা যায় না, স্থীর করা যায় না।
জীবন সেতো এক প্রকান্ড বরফ খন্ড, গলতে গলতে নিঃশেষের প্রান্ত সীমায় এসে অস্তিত্ব বিলীনের পথে, হয়ত খানিক পরে অস্তিত্ব খুঁজে পাওয়া মুশকিল হয়ে পড়বে, জীবন হয়ে পড়বে ইতিহাসের এক খন্ড চিত্র।#
তিন।
জীবনখাতার টুকরোপাতা
……..
জীবনখাতার টুকরো পাতাগুলো কেমন জানি অমসৃন বিবর্ণ হয়ে উঠছে,যেমনটা হয় গাছের সবুজাভ পত্র পল্লব।
জীবনের ভার বইতে বইতে হয়ত জীবনখাতার টুকরো পাতাগুলো বড্ড ক্লান্ত পরিশ্রান্ত, মুক্তি চায়, চায় স্থায়ীভাবে অব্যহতি।
একদিন গাছের পাতার মতো খসে পড়বে, বাকীটা হবে ইতিহাস, হয়ত এই পাতাগুলো ইতিহাসে স্থান করে নিতে পারবে, নাও নিতে পারে।
জীবন চলার অকৃত্রিম বন্ধু এই টুকরো পাতাগুলো আমাকে কী যেন বলতে চায়, মায়াবি চাহনীতে আমাকে কী যেন ইশারা করছে, আমার অক্ষমতায় হয়ত আমি তা বুঝি না, বুঝার যোগ্যতাও আমার নেই।
তবে এইটুকু বুঝি জীবনখাতার টুকরো পাতাগুলো আমাকে আর আমার প্রস্তুতিকে সুসম্পন্নের নিরব আহ্বান জানায়,
কানে কানে বলে যায় একসময় আমরা বেশ জোয়ান ছিলাম, ছিলো আমাদের গৌরবময় রঙ্গিন ইতিহাস আর কালের পরিক্রমায় আমাদের জোয়ানী আর গৌরব নিরবে ক্ষয়ে ক্ষয়ে বিলীনের পথে হাঁটছে।
এসো বন্ধু, অসীমের কাছে সসীমের সমার্পণের প্রস্তুতি সুসম্পন্ন করি। #
..
অধ্যক্ষ আনোয়ার আল ফারুক
সম্পাদক ও প্রকাশক,বর্ণমালা ম্যাগাজিন, ফেনী