কৌশলগত কারণে বাংলাদেশ খুবই গুরুত্বপূর্ণ: জাপান

প্রকাশিত: ৭:৩৩ অপরাহ্ণ, ডিসেম্বর ২৪, ২০২০ | আপডেট: ৭:৩৩:অপরাহ্ণ, ডিসেম্বর ২৪, ২০২০

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট,ঢাকা: ভূ-রাজনৈতিক অবস্থান বা কৌশলগত অবস্থানের দিক থেকে বাংলাদেশ খুবই গুরুত্বপূর্ণ অবস্থানে রয়েছে বলে মন্তব্য করেছেন বাংলাদেশে নিযুক্ত জাপানের রাষ্ট্রদূত ইতো নাওকি।

তিনি বলেন, ভূ-রাজনৈতিক এই অবস্থান বাংলাদেশের অর্থনৈতিক উন্নতিসহ সার্বিক উন্নতিতে প্রভাব ফেলছে। পাশাপাশি বাংলাদেশে বড় বড় অককাঠামো উন্নয়ন চলছে, যা ৩ থেকে ৫ বছরের মধ্যে দেশটির চেহারা পাল্টে দেবে। বাংলাদেশ অর্থনীতির নতুন ফ্রন্টিয়ার এবং বিনিয়োগের জন্যও নতুন ফ্রন্টিয়ার। আর এসব কারণেই বিদেশি ব্যবসায়ীরা বাংলাদেশে বিনিয়োগের জন্য আকৃষ্ট হচ্ছে।

কূটনৈতিক প্রতিবেদকদের সংগঠন ডি-ক্যাব আয়োজিত ‘ডি-ক্যাব টক’ অনুষ্ঠানে বাংলাদেশে নিযুক্ত জাপানের রাষ্ট্রদূত ইতো নাওকি বৃহস্পতিবার (২৪ ডিসেম্বর) বাংলাদেশ সম্পর্কে এমন মন্তব্য করেন।

 

বাংলাদেশের গুরুত্ব বোঝাতে গিয়ে রাষ্ট্রদূত ইতো নাওকি বলেন, ‘বেশ কয়েকটি কারণে জাপানের ব্যবসায়ীরা বাংলাদেশে বিনিয়োগ করতে চায়। প্রথমত, সামনের দিনগুলোতে বাংলাদেশের অর্থনৈতিক উন্নয়নে প্রচুর সম্ভাবনা রয়েছে। এশিয়ার মধ্যে সবচেয়ে ভালো করছে বাংলাদেশ। ভূ-রাজনৈতিক ও কৌশলগত অবস্থানের দিক থেকে বাংলাদেশ খুব গুরুত্বপূর্ণ অবস্থানে অবস্থিত। একদিকে ভারত, অন্যদিকে দক্ষিণ এশিয়ার সঙ্গে দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ার দেশগুলোর সংযোগ রক্ষা করছে বাংলাদেশ। এটা খুবই বড় একটা সুবিধা, যা দেশটিকে এগিয়ে যাওয়ার ক্ষেত্রে কাজে দেবে। এসব কারণে বাংলাদেশ অর্থনীতির নতুন ফ্রন্টিয়ার এবং বিনিয়োগের জন্যও নতুন ফ্রন্টিয়ার। এসব কারণেই জাপানের ব্যবসায়ীরা বাংলাদেশে বিনিয়োগ করতে চায়। বাংলাদেশে বিনিয়োগের পরিবেশ রয়েছে কিন্তু মান সম্মত অবকাঠামো উন্নয়ন নিশ্চিত করতে হবে। বিনিয়োগকারীরা বলে থাকে যে মানসম্মত অবকাঠামো হচ্ছে বিনিয়োগের পূর্বশর্ত।’

বাংলাদেশ-জাপান সম্পর্ক নিয়ে বলতে গিয়ে রাষ্ট্রদূত ইতো নাওকি বলেন, ‘বাংলাদেশ-জাপান সম্পর্কের অগ্রগতি সন্তোষজনক। চলতি বছরে করোনা সংক্রমণের জন্য বিশ্বব্যাপী উন্নয়ন বাধাগ্রস্ত হয়েছে। এই করোনার মধ্যেও আমাদের দুই দেশের সহযোগিতামূলক সম্পর্ক এগিয়ে গেছে। করোনা মোকাবিলায় বাংলাদেশকে স্বাস্থ্য সুরক্ষা সরঞ্জামসহ প্রয়োজনীয় মেডিকেল যন্ত্রপাতি দিয়ে সহযোগিতা করেছে জাপান। প্রথমবারের মতো জাপান সরকার বাংলাদেশকে বাজেট সহায়তা হিসেবে ৩৩০ মিলিয়ন ডলার সহায়তা দিয়েছে।’

রাষ্ট্রদূত আরও বলেন, ‘করোনার মধ্যেও বাংলাদেশ অর্থনৈতিক উন্নতির যাত্রা অব্যাহত রেখেছে। পাশাপাশি গুরুত্বপূর্ণ অবকাঠামো উন্নয়ন করছে, যেমন— ঢাকা মেট্রোরেল, ঢাকা বিমানবন্দর, মাতারবাড়ি গভীর সমুদ্রবন্দর ইত্যাদি। অবকাঠামো উন্নয়ন সংক্রান্ত বাংলাদেশের এসব প্রকল্প অর্থনৈতিক উন্নয়ন এবং বিদেশি বিনিয়োগে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে। এসব অবকাঠামো উন্নয়ন আগামী ৩ থেকে ৫ বছরের মধ্যে বাংলাদেশের চেহারা বদলে দেবে।’

রাষ্ট্রদূত ইতো নাওকি বলেন, ‘গত এক দশকে বাংলাদেশে জাপানের বিনিয়োগ, বাণিজ্যসহ দ্বিপাক্ষিক সম্পর্ক বেড়েই চলছে। বর্তমানে জাপানের ৩১৫টি ব্যবসায়ী প্রতিষ্ঠান বাংলাদেশে বিনিয়োগ করেছে। সামনে এই বিনিয়োগ আরও বাড়বে। অন্যদিকে বাংলাদেশ জাপানের অন্যতম বড় আমদানিকারক দেশ।’