চীনা পররাষ্ট্রমন্ত্রীর মিয়ানমার সফর, সীমান্তে বেড়া নিয়ে আলোচনা

প্রকাশিত: ৭:১৯ অপরাহ্ণ, জানুয়ারি ১৩, ২০২১ | আপডেট: ৭:১৯:অপরাহ্ণ, জানুয়ারি ১৩, ২০২১

ইকোনোমিক টাইমস রিপোর্ট।চীনের পররাষ্ট্রমন্ত্রী ওয়াং দুই দিনের রাষ্ট্রীয় সফরে মিয়ানমারে অবস্থান করছেন। সফরকালে দুই দেশের সীমান্তে ঝুকিপূর্ণ অংশগুলোতে স্থায়ী বেড়া সরিয়ে নেয়ার বিষয়টি মূল আলোচ্য বিষয় হতে পারে জানিয়েছে ইকনোমিক টাইমস।

মিয়ামমার সরকারের মুখপাত্র ইউ যাও বলেন, দুই দেশের মধ্যে একটি সীমান্ত চুক্তি হয়েছে। চুক্তি অনুযায়ী সীমান্তের উভয় পাশের ১০ মিটারের মধ্যে কোনো স্থাপনা নির্মাণ করা যাবে না।

ইকনোমিক টাইমস বলছে, চলতি মাসে মিয়ানমার চীনের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় সীমান্তে অস্থায়ী বেড়া নিয়ে আলোচনায় বসবে। ঝুকিপূর্ণ পয়েন্টগুলোতে থাকা চীনের স্থায়ী বেড়াগুলো সরিয়ে নেয়ার শর্ত দিয়েছে মিয়ানমার। ওই পয়েন্টগুলোতে শুধু অস্থায়ী বেড়া রাখতে রাজি আছে মিয়ানমার বলে জানা গেছে।

রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞ ইউ থান সই নাইং বলেন, চীন একটি সুপার পাওয়ার, যার কারণে আশপাশের দেশগুলোতে তারা সবসময় একটি চাপ তৈরি করে রাখে। কিন্তু সীমান্তের বিষয়টি অন্য রাষ্ট্রকে চাপে রাখার কিছু কিছু না বরং তাদের নিরাপত্তার বিষয়। মিয়ানমার সীমান্তে দেয়া স্থায়ী বেড়ার নির্মাণ তারা নিরাপত্তাজনিত কারণেই করেছে। চীনের উচিৎ দ্বিপক্ষীয় চুক্তি মিয়ানমারের স্বার্থ রক্ষা করা।