জাপানি ব্যবসায়িদের বাংলাদেশে বিনিয়োগের আহ্বান

প্রকাশিত: ৭:৪২ অপরাহ্ণ, ফেব্রুয়ারি ২, ২০২১ | আপডেট: ৭:৪২:অপরাহ্ণ, ফেব্রুয়ারি ২, ২০২১

০২-০২-২০২১-মঙ্গলবার টোকিওস্থ বাংলাদেশ দূতাবাস, বাংলাদেশ ইনভেস্টমেন্ট এন্ড ডেভেলপমেন্ট অথোরিটি (বিডা),  বাংলাদেশ ইকোনমিক জোন অথোরিটি (বেজা), জাপান এক্সটারনাল ট্রেড অর্গানাইজেশন (জেট্রো) এবং জাপান ইন্টারন্যাশনাল কোঅপারেশন এজেন্সি (জাইকা)র সম্মিলিত উদ্যোগে বাংলাদেশ বিজনেস সেমিনার (ওয়েবিনার) অনুষ্ঠিত হয়। জাপানি বিভিন্ন ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের দুইশতাধিক প্রতিনিধি সেমিনারে অংশগ্রহণ করেন।

সেমিনারে স্বাগত বক্তব্য প্রদান করেন জাপানে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত শাহাবুদ্দিন আহমদ। ওয়েবিনারে সকল অংশগ্রহণকারীকে তিনি স্বাগত ও শুভেচ্ছা জানান। তিনি বলেন এশিয়ায় বাংলাদেশের অন্যতম রপ্তানী গন্তব্য জাপান। রাষ্ট্রদূত  সকলকে জানান বাংলাদেশে বিদেশি বিনিয়োগের অনুকূল পরিবেশ বিদ্যমান এবং সরকার বিনিয়োগকারীদের জন্য নানাবিধ আর্থিক ও অ-আর্থিক প্রণোদনা প্রদান করছে। বাংলাদেশে বিনিয়োগে জাপানী ব্যবসায়ীদের আগ্রহ আমাদের অনুপ্রাণিত করে উল্লেখ করে রাষ্ট্রদূত বলেন, বাংলাদেশে বিনিয়োগের ক্ষেত্রে যথাসম্ভব সহযোগিতা, তথ্য ও পরামর্শ  প্রদান করতে টোকিওস্থ দূতাবাস সদা প্রস্তুত রয়েছে। তিনি জাপানি ব্যবসায়িদের বাংলাদেশে আরো অধিক হারে বিনিয়োগের আহবান জানান।

এছাড়া অনলাইন আলোচনায় আরো বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশে নিযুক্ত জাপানি রাষ্ট্রদূত জনাব নাওকি ইতো এবং প্রধানমন্ত্রী কার্যালয়ের মুখ্য সচিব ড. আহমদ কায়কাউস।  বাংলাদেশের মানুষের আয় ক্রমাগত বাড়ছে এবং দেশেই বিশাল ভোক্তা শ্রেণী ও বাজার তরী হচ্ছে উল্লেখ করে মুখ্য সচিব জাপানি ব্যবসায়িদের এই সুযোগ কাজে লাগানোর জন্য দেশের বিভিন্ন খাতে বিনিয়োগের আমন্ত্রণ জানান।

বিনিয়োগ গন্তব্য হিসাবে বাংলাদেশ এবং বাংলাদেশে ব্যবসার পরিবেশ বিষয়ক প্রেজেন্টেশন করেন বিডার শাহ মাহবুব, এবং বেজার মুস্তাফিজুর রহমান। বাংলাদেশে ব্যবসা পরিচালনাকারী জাপানি ব্যবসা প্রতিষ্ঠান সুমিতমো স্পেশাল ইকোনমিক জোন (সেজ) সংক্রান্ত, এবং হোন্ডা ও মন্সটারল্যাব থেকে বাংলাদেশে ব্যবসা পরিচালনায় তাঁদের অভিজ্ঞতা বর্ণনা করেন যথাক্রমে চিহারু তাগাওয়া, হিমিহিকো কাতসুকি এবং মাজুকি নাকায়ামা। এছাড়া বাংলাদেশে জাপানি ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের গতিধারা ও কার্যক্রম সম্পর্কে বিশদ আলোচনা করেন জেট্রোর বাংলাদেশ প্রতিনিধি ইউজি আন্দো। আলোচকগণ বাংলাদেশকে সম্ভাবনাময় ও বিনিয়োগের সোনালী গন্তব্য হিসাবে আখ্যায়িত করেন।

অনুষ্ঠানে সমাপনি বক্তব্য প্রদান করেন বিডার নির্বাহী চেয়ারম্যান জনাব সিরাজুল ইসলাম, বেজার নির্বাহী চেয়ারম্যান  জনাব পবন চৌধুরী এবং জাইকা বাংলাদেশের প্রধান প্রতিনিধি জনাব ইউহো হায়াকাওয়া। অনুষ্ঠানটি সঞ্চালনা করেন দূতাবাসের কমার্শিয়াল কাউন্সেলর ড. আরিফুল হক।