স্বাস্থ্যসেবা নিশ্চিতে মায়ার ২.২ মিলিয়ন ডলার তহবিল সংগ্রহ

প্রকাশিত: ৩:১৬ অপরাহ্ণ, ফেব্রুয়ারি ১৫, ২০২১ | আপডেট: ৩:১৬:অপরাহ্ণ, ফেব্রুয়ারি ১৫, ২০২১

১৫ ফেব্রুয়ারি, ২০২১ | দেশের প্রজনন ও মানসিক স্বাস্থ্যের মতো সংবেদনশীল সমস্যাগুলোতে নারীরা যেন তাদের স্বাস্থ্যের প্রতি আরো যত্নবান হতে পারে সেই লক্ষ্যে অ্যাপের মাধ্যমে দীর্ঘদিন ধরে ‘মায়া’ কাজ করে যাচ্ছে। বাংলাদেশ ভিত্তিক এই স্টার্টঅ্যাপটি এখন বাংলাদেশ ছাড়াও এশিয়ার কয়েকটি দেশে সেবা দিতে তৈরি হচ্ছে।

তারই প্রেক্ষিতে ‘মায়া’ ২.২ মিলিয়ন ডলার তহবিল সংগ্রহ করে। মূলত, অ্যাঙ্করলেস বাংলাদেশ এবং এশিয়ান বাজারে বিনিয়োগের প্রভাবকে কেন্দ্র করে গড়ে উঠা একটি বেসরকারি ইকুইটি ফার্ম ওসিরিস গ্রুপের নেতৃত্বে এই তহবিল সংগ্রহ করা হয়েছে। যা বাংলাদেশি যেকোনো স্বাস্থ্য প্রযুক্তি সংস্থার মধ্যে এখন পর্যন্ত সবচেয়ে বড় তহবিল।

এই তহবিলের অর্থ মায়ার টেলি হেলথ প্ল্যাটফর্মের উন্নয়ন এবং নতুন দেশে, তাদের নতুন পরিষেবাগুলো সবার মাঝে নিয়ে আসতে ব্যয় হবে। সম্প্রতি শ্রীলঙ্কায় মায়ার কার্যক্রম চালু হয়েছে এবং ভারত, পাকিস্তান এবং মধ্য প্রাচ্যের দেশগুলিতেও এর পরীক্ষা নিরীক্ষা চলছে।

মায়ার প্রতিষ্ঠাতা ও প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা আইভী হক রাসেল জানান, মায়ার তার নিজস্ব মেশিন লার্নিং প্রযুক্তি ব্যবহার করে স্বাস্থ্য সম্পর্কিত সকল সাধারণ প্রশ্নের উত্তর দেয়। পাশাপাশি ব্যবহারকারীদের প্রশ্ন বিশেষজ্ঞদের কাছে পাঠানোর দরকার কিনা সে বিষয়েও সিদ্ধান্ত নিয়ে থাকে। মায়া তাদের ৩০০ জনেরও বেশি লাইসেন্স প্রাপ্ত স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞ নিয়ে প্রায় ১০ মিলিয়ন ব্যবহারকারীকে সেবা প্রদান করে যাচ্ছে।

তিনি আরও জানান, মায়ার মোট ব্যবহারকারীর প্রায় ৩০% পুরুষ, যারা পরিবার পরিকল্পনা, জন্মনিয়ন্ত্রণ বা কিভাবে তাদের সঙ্গীর বিভিন্ন স্বাস্থ্য সমস্যায় সহযোগিতা করবে, সেই সব বিষয়ে প্রশ্ন করে থাকেন। ব্যবহারকারীর গোপনীয়তা রক্ষা করতে পরিচয় শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত গোপনীয় রাখা হয় এবং কেবল বিশেষজ্ঞরা ব্যক্তিগত তথ্যের পরিবর্তে শুধুমাত্র তাদের আইডি নাম্বার দেখতে পান।