রোড ম্যাপ ঘোষণায় জনসন- “আমরা স্বাধীনতার এক মুখী পথের যাত্রী“

প্রকাশিত: ৮:৫৭ অপরাহ্ণ, ফেব্রুয়ারি ২২, ২০২১ | আপডেট: ৮:৫৭:অপরাহ্ণ, ফেব্রুয়ারি ২২, ২০২১

লন্ডন। হাউজ অব কমন্স, ডাউনিং ষ্ট্রীট । ব্রিটেনে নতুন ধরণের করোনাভাইরাস শনাক্ত হওয়া এবং দেশজুড়ে মহামারির আক্রমণ ভয়াবহ রূপধারণের প্রেক্ষাপটে তৃতীয় দফায় জারি হওয়া লকডাউন ধাপে ধাপে শিথিল বা চার ধাপে তুলে নেয়ার রোডম্যাপ ঘোষণা করেছেন প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন। তিনি তাড়াহুড়ো না করে সতর্ক করে দিয়ে বলেছেন, আমরা স্বাধীনতার পথে একমুখী পথের যাত্রী।

প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন প্রস্তাবিত রোডম্যাপ মতে, আগামী ৮ই মার্চ সকল স্কুলসহ শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলা হবে। পরবর্তীতে খুলবে স্পোর্টস এবং রিক্রেশন সেন্টার। অবশ্য পার্ক, কফিশপ বা বারে দুইজনের বেশি একত্রে মিলিত হওয়া, গল্প করা, মিটিং বা আড্ডাবাজি করতে পারবেন না। এ ব্যাপারে প্রশাসনের কড়া নজরদারি থাকবে।

২৯শে মার্চ থেকে দুই পরিবারের মধ্য দেখা-সাক্ষাতের বিদ্যমান নিষেধাজ্ঞা ওঠে যাবে, পরিবারদ্বয়ের সদস্যরা একে অন্যের বাসায় যেতে পারবেন। ২৯ শে মার্চ থেকে ৬ জন একত্রে মিলিত হতে পারবেন, গ্রুপ মিটিং করতে পারবেন। ৬ সদস্যের বা দুই পরিবারের একত্রে মেলামেশা করা যাবে।

২৯শে মার্চ থেকে এক শহরের লোক অন্য শহর বা অন্য অঞ্চলে যাতায়াত করতে পারবেন।
শুধু তাই নয়, এপ্রিল মাস ( ১২ এপ্রিল থেকে) থেকে বিদ্যমান লকডাউনে ধাপে ধাপে আরো শিথিলতা আসবে। এপ্রিলে প্রস্তাবিত শিথিলতার মধ্যে উল্লেখযোগ্য হচ্ছে, আউটডোর পরিসেবা উন্মুক্তকরণ।
মে মাসে (১৭ মে থেকে) পাব রেস্টুরেন্ট খোলা হতে পারে। ২১ জুন থেকে বিধিনিষেধ পুরিপুরি উঠে যাবে চতুর্থ দফায়। ঘোষণা মতে, জুলাই মাসের মধ্যে সবার জন্য ভ্যাকসিন প্রকল্প বাস্তবায়িত হবে।