সাহেদের অবস্থান শনাক্ত, যেকোনো সময় গ্রেপ্তার

প্রকাশিত: ১০:৫৬ অপরাহ্ণ, জুলাই ১১, ২০২০ | আপডেট: ১০:৫৬:অপরাহ্ণ, জুলাই ১১, ২০২০

লন্ডন টাইমস নিউজ, ঢাকা।করোনা রোগীদের সঙ্গে প্রতারণা ও বিভিন্ন অনিয়মের দায়ে সিলগালা করা রাজধানীর বেসরকারি রিজেন্ট হাসপাতালের মালিক মো. সাহেদকে গ্রেপ্তারের চেষ্টা চালাচ্ছে আইন-শৃঙ্খলাবাহিনী। সর্বশেষ প্রাপ্ত তথ্যমতে, তার অবস্থান শনাক্ত করা হয়েছে। যে কোনো সময় গ্রেপ্তার হতে পারেন।

রিজেন্ট হাসপাতালে অভিযানের পাঁচদিন পেরিয়ে গেছে। এর মধ্যেই গত ৭ জুলাই রাতে উত্তরা পশ্চিম থানায় মো. সাহেদসহ ১৭ জনকে আসামি করে মামলা দায়ের করে র‌্যাব। চাঞ্চল্যকর এ মামলার তদন্তভার নিতে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে আবেদন করেছে র‌্যাব।

এর মধ্যেই হাসপাতালটির ব্যবস্থাপনা পরিচালক মাসুদ পারভেজসহ আটজনকে গ্রেপ্তার করা হয়। এরপর গ্রেপ্তার হন সাহেদের ঘনিষ্ঠ সহযোগী ও রিজেন্ট গ্রুপের মুখপাত্র তারেক শিবলী। অভিযানের দিন থেকেই পলাতক আছেন সাহেদ করিম। তবে গোয়েন্দা নেটওয়ার্কের মধ্যেই অবস্থান করছিলেন।

গোয়েন্দা সূত্রগুলোর তথ্যমতে, রিজেন্ট হাসপাতালে অভিযানের সময় ঢাকাতেই ছিলেন সাহেদ। পরে গ্রেপ্তারের ভয়ে নিজেকে আড়াল করতে আত্মগোপনে চলে যান।

এদিকে স্বামী সাহেদের বিচার চেয়ে গণমাধ্যমে বিবৃতি দিয়েছেন তার স্ত্রী সাদিয়া আরাবি রিম্মি। স্বামীর এমন অপকর্ম ও প্রতারণার কারণে তিনি নিজে লজ্জিত এবং দুঃখিত বলেও জানিয়েছেন।

করোনা মহামারীর মধ্যে নমুনা পরীক্ষা না করে ভুয়া প্রতিবেদন দেয়ার ‘প্রমাণ পেয়ে’ গত ৬ জুলাই উত্তরায় রিজেন্ট হাসপাতালে অভিযান চালায় র‌্যাব। অভিযানে আরও অনিয়ম ধরা পড়ার পর উত্তরা ও মিরপুরে রিজেন্ট হাসপাতাল বন্ধ করে দেয়া হয়।

পরপর দুই দিন অভিযান চালিয়ে রিজেন্টের আট কর্মকর্তা-কর্মচারীকে গ্রেপ্তার করে র‌্যাব। চিকিৎসা নিয়ে প্রতারণায় উত্তরা পশ্চিম থানায় সাহেদসহ ১৭ জনকে আসামি করে মামলা করার পর থেকেই আত্মগোপনে গেছেন সাহেদ।