ডিএফআইডির বিরুদ্ধে যৌন হয়রানির এন্তার অভিযোগ

প্রকাশিত: ১১:৩১ অপরাহ্ণ, জুলাই ২৩, ২০২০ | আপডেট: ১১:৩১:অপরাহ্ণ, জুলাই ২৩, ২০২০

লন্ডন, লন্ডন টাইমস নিউজ,ডেইলি মেইল।ব্রিটেনের সরকারি সহায়তা সংস্থা ডিএফআইডি’র একাধিক কর্মী বিভিন্ন দেশে এধরনের অভিযোগের প্রেক্ষিতে চাকরি হারিয়েছেন, অনেককে সতর্ক করে দেয়া হয়েছে।

গত বছরে প্রতি দুই সপ্তাহে এধরনের অভিযোগ রেকর্ড করা হয়েছে। এর আগের বছর এধরনের অভিযোগের সংখ্যা ছিল ৫টি। সংস্থাটির বার্ষিক প্রতিবেদনে এসব তথ্য উঠে এসেছে। এর আগে অক্সফাম ও সেভ দি চিলড্রেনের মত সহায়তা সংস্থাগুলোতে যৌন নির্যাতনের যে ঘটনা ঘটে ডিএফআইডি’তেও একই ধরনের ঘটনা বৃদ্ধি পাচ্ছে বলে ওই প্রতিবেদনে বলা হয়। এধরনের ঘটনায় ৬০ শতাংশই যৌন নির্যাতন, ২০ শতাংশ যৌন হয়রানি ও বৈষম্যমূলক আচরণ, ১০ শতাংশ শারীরিক নির্যাতন ও বাকি ঘটনাগুলো ছিল শিশু নির্যাতনের। অভিযুক্তদের এক তৃতীয়াংশ জবাবদিহির মুখোমুখি কিংবা চাকরি হারাতে হয়েছে।

২০১৮ সালের ফেব্রুয়রি থেকে এধরনের অভিযোগের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া শুরু করে। এধরনের ঘটনা যাতে না ঘটে সে জন্যে সুরক্ষামূলক ব্যবস্থা নিলেও তা বৃদ্ধি পায়। ১৪টি ঘটনায় দেখা গেছে নির্যাতনের শিকার ডিএফআইডি’র কর্মী ছিল। ১১টি ঘটনার এখনো সুরাহা হয়নি। এসব ঘটনায় অন্তত সংস্থাটির ৫ জন কর্মী চাকরি চলে যায়। প্রতিবেদনে নির্যাতনের ঘটনা কোন কোন দেশে বা কাদের বিরুদ্ধে ঘটেছে সে সম্পর্কে কোনো তথ্য দেয়া হয়নি।

ডিএফআইডি এসব ঘটনা সম্পর্কে মন্তব্য করতে অস্বীকার করলেও প্রতিটি ঘটনা খুব গুরুত্বের সঙ্গে দ্রুত ও গোপনীয়ভাবে তদন্ত হচ্ছে বলে আশ্বাস দেয়। সংস্থাটির এক মুখপাত্র বলেছেন, মৌখিকভাবে যৌন নির্যাতন, বৈষম্য ও হয়রানির কোনো স্থান সংস্থাটিতে অসম্ভব।