নারীদের মূত্র দিয়ে তৈরি হচ্ছে বিশ্বখ্যাত গোল্ডিলিকস ব্রেড

প্রকাশিত: ১১:৪৭ পূর্বাহ্ণ, জুলাই ২৬, ২০২০ | আপডেট: ১২:০১:অপরাহ্ণ, জুলাই ২৬, ২০২০

লন্ডন টাইমস নিউজ।নিউ ইয়র্ক পোষ্ট, এশিয়া নেট।ব্রেকফাস্ট মানেই সবার আগে মাথায় আসে পাউরুটির নাম। সে স্যান্ডউইচ হোক বা জ্যাম বা মাখনের সঙ্গে, সবেতেই জলখাবারে অত্যন্ত জনপ্রিয় এই পাউরুটি। সম্প্রতি এমন এক তথ্য প্রকাশ্যে এসেছে যা শুনে চক্ষু কপালে উঠেছে। সুস্বাদু এই পাউরুটির মূল উপকরণই নাকি মহিলাদের মূত্র। বিষয়টি শুনে চমকে যাওয়ারই মতো কিন্তু এটাই সত্যি। মহিলাদের মূত্র দিয়ে তৈরি হচ্ছে এই বিশেষ জনপ্রিয় পাউরুটি। তবে এদেশে নয়, সুদূর প্যারিসের বেকারির  জনপ্রিয় পাউরুটি ‘গোল্ডিলকস ব্রেড’-এর রইল একগুচ্ছ সিক্রেট।

২০২০ সালটা যেন বড্ডই আজব। একের পর এক খবরে চমকে যাচ্ছে সকলেই। একদিকে মৃত্যুর খবর অন্যদিকে অবিশ্বাস্য সংবাদে ভরে যাচ্ছে সোশ্যাল মিডিয়ার পাতা।সম্প্রতি প্রকাশ্যে এসেছে প্যারিসের জনপ্রিয়  পাউরুটি ‘গোল্ডিলকস ব্রেড’-এর  সিক্রেট। যা শুনে চোখ কপালে উঠেছে।

পাউরুটি প্রস্তুতকারী সংস্থার কর্ণধার লুইস রাগেট  সম্প্রতি এক সাক্ষাৎকারে জানিয়েছেন, নিজের বেকারিতে তৈরি পাউরুটিতে তিনি মহিলাদের মূত্র ব্যবহার করেন।পাবলিক টয়লেট থেকে তিনি এই মূত্র সংগ্রহ করে থাকেন। তার এই চাঞ্চল্যকর দাবিতেই সকলে হতবাক হয়েছে। আর এই রুটিই নাকি ভীষণ জনপ্রিয় প্যারিসে।

লুইস রাগেট  নিজেকে ইঞ্জিনিয়ারও ইকোফেমিনিস্ট বলে পরিচয় দিয়েছেন। শরীরের বর্জ্য পদার্থ নিয়ে সমাজে যে ধারণা রয়েছে তা তিনি ভাঙতে চান।তিনি জানিয়েছেন, ময়দা ফারমেন্টেশনের জন্যই তিনি মহিলাদের মূত্র ব্যবহার করেন। কারণ মূত্রে রয়েছে নাইট্রোজেন, পটাশিয়ামের মতো মৌল। আর পাউরুটি তৈরির অন্যতম উপাদান হল নাইট্রোজেন।লুইসের দাবি, মূত্র খুব ভাল ফার্টিলাইজার। তিনি জানিয়েছেন, মূত্র সরাসরি নয়, তা ব্যবহার করার আগে অন্তত ২০ বার ডায়ালিউট করা হয়। তারপর তা দিয়ে ব্রেড ফার্টিলাইজ করা হয়।

সেই মূত্র দিয়ে তৈরি হয় সুস্বাদু ‘গোল্ডিলকস পাউরুটি’। সমীক্ষায় দেখা গেছে প্রতিদিন প্রায় ৩ কোটির মতো পাউরুটি তৈরি ও বিক্রি করেন তিনি।তিনি আরও জানিয়েছেন, মূত্র ব্যবহার করার মাধ্যমে তিনি প্রতিদিন ৭০৩ টন নাইট্রোজেন বাঁচিয়ে দেন, যা কৃষকেরা কৃত্রিম সার হিসেবে ব্যবহার করতে পারেন জমিতে।