বেশিরভাগ শিক্ষিত মানুষই দূর্ণীতির সঙ্গে জড়িত : মাশরাফি

প্রকাশিত: ১১:৫১ পূর্বাহ্ণ, আগস্ট ২, ২০২০ | আপডেট: ১১:৫১:পূর্বাহ্ণ, আগস্ট ২, ২০২০

নিজস্ব সংবাদদাতা, নড়াইল।  “ভিন্নমত ভিন্নপথ,সবাই মিলে একহাত” এ শ্লোগানকে সামনে রেখে রবিবার বেলা ১১টায় শিল্পকলা একাডেমি মিলনায়তনে জনতার মুখোমুখি হলেন নড়াইল-২ আসনের সাংসদ মাশরাফি বিন মুর্তজা। অনুষ্ঠানের উদ্যোক্তা ছিলেন তিনি নিজেই। সমাজ উন্নয়ন থেকে দূর্ণীতি সব ধরণের প্রশ্ন উঠে আসে বিভিন্ন প্রশ্নকর্তার কাছ থেকে। একে একে বিভিন্ন প্রশ্নের উত্তর দেন মাশরাফি বিন মর্তুজা।

নড়াইল পৌর মেয়র জাহাঙ্গীর বিশ্বাস, লোহাগড়া পৌর মেয়র আশরাফুল আলম, জেলা আইনজীবী সমিতির সাধারন সম্পাদক অ্যাডভোকেট উত্তম ঘোষ, জেলা আওয়ামী লীগের বিগত কমিটির বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদ হাফিজ খান মিলন, জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি চঞ্চল শাহরিয়ার মিম, নড়াইল এক্সপ্রেস ফাউন্ডেশনের সাধারণ সম্পাদক তরিকুল ইসলাম অনিকসহ অর্ধ শতাধিক ব্যক্তি এমপির কাছে বিভিন্ন প্রশ্ন করেন এবং এমপি তাদের কথার উত্তর প্রদান করেন। জেলার ৪০টি শ্রেণি-পেশার মানুষ ছিলেন অনুষ্ঠানের প্রশ্নকর্তা। প্রায় তিন ঘন্টা ধরে চলে অনুষ্ঠানের কার্যক্রম। অনুষ্ঠানটি সহযোগিতা করে নড়াইল জেলা ছাত্রলীগ।

বিভিন্ন প্রশ্নের জবাবে মাশরাফি বলেন, বেশিরভাগ শিক্ষিত মানুষই দূর্ণীতির সঙ্গে জড়িত। আপনারা যারা সমাজের তৃণমূল পর্যায়ে নিরলসভাবে কাজ করে চলেছেন দেশ প্রেমিক আপনারাই। আপনাদেরকে স্যালুট জানাই। জাতিরজনক বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলা গড়ে তোলার দায়িত্ব আপনার আমার সবার। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দেশকে সোনার বাংলায় গড়ে তুলতে নিরলস কাজ করে চলেছেন। আসুন আমরা দুহাত বাড়িয়ে তার উন্নয়নের জোয়ারকে এগিয়ে নিয়ে যাই।

এর আগে তিনি নড়াইল প্রেসক্লাবে ২৭জন গণমাধ্যমকর্মীদের মধ্যে করোনাকালে প্রধানমন্ত্রীর আর্থিক সহায়তার চেক প্রদান করেন। নড়াইল প্রেসক্লাবের সভাপতি এনামুল কবীরের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি ছিলেন মাশরাফি বিন মুর্তজা বিশেষ অতিথি ছিলেন জেলা প্রশাসক আনজুমান আরা এবং পুলিশ সুপার মোহাম্মদ জসিম উদ্দীন। অনুষ্ঠান পরিচালনা করে প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক শামীমুল ইসলাম টুলু।