চোখের মাধ্যমে কি করোনাভাইরাস প্রবেশ করতে পারে?

প্রকাশিত: ৭:৩৫ অপরাহ্ণ, আগস্ট ৩, ২০২০ | আপডেট: ৭:৩৫:অপরাহ্ণ, আগস্ট ৩, ২০২০

সিএনএন রিপোর্ট।প্রায় সবাই জানেন যে করোনাভাইরাস মূলত নাক ও মুখের মাধ্যমে মানুষের শরীরে প্রবেশ করে। তাই ডাক্তাররা সবসময় বলছেন মাস্ক ব্যবহার করতে এবং সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখতে। কিন্তু চোখের বিষয়টা কী? আমাদের সবারই কি গগলস বা ফেস শিল্ড পরা উচিত?আমেরিকান অ্যাকাডেমি অব অপথ্যালমোলোজির মুখপাত্র ডা. থমাস স্টেইনম্যান বলেছেন, ‘চোখের মাধ্যমে কেউ কভিড-১৯ এ আক্রান্ত হতে পারেন।’

বিশ্ব স্বাস্থ্য কিছুদিন আগেই নিশ্চিত করেছে যে বাতাসে ভেসে থাকা ড্রপলেট থেকে মানুষ করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হতে পারে। এই ড্রপলেট চোখের মাধ্যমে মানুষের শরীরে প্রবেশ করতে পারে। এছাড়া, কারো হাতে করোনাভাইরাস থাকলে সে হাতে দিয়ে চোখ স্পর্শ করলে সংশ্লিষ্ট ব্যক্তি করোনায় আক্রান্ত হতে পারেন- এ তথ্য জানিয়েছে যুক্তরাষ্ট্রের সেন্টারস ফর ডিজিজ কন্ট্রোল অ্যান্ড প্রিভেনশন।থমাস স্টেইনম্যান সিএনএনকে বলেছেন, ‘হ্যাঁ, করোনাভাইরাস বাতাসে ভেসে থাকতে পারে। এটা কি চোখে প্রবেশ করতে পারে? হ্যাঁ। তবে স্টেইনম্যান মনে করেন চোখের মাধ্যমে করোনাভাইরাস শরীরে প্রবেশের আশঙ্কা কম; মুখ এবং নাক দিয়েই এটা বেশি প্রবেশ করে।

চোখ থেকে করোনাভাইরাস সরাসরি মানবদেহে প্রবেশ করতে পারে না। প্রথমে চোখে যুক্ত হয়ে চোখের তরলের মাধ্যমে মুখে যায় এবং সেখান থেকে ফুসফুসে প্রবেশ করে। পথটা জটিল, তবে এ পথে করোনাভাইরাসের মানবদেহে প্রবেশ সম্ভব।তাহলে কি সবার গগলস কিংবা ফেস শিল্ড ব্যবহার করা উচিত? এ প্রশ্নের জবাবে যুক্তরাষ্ট্রের সংক্রামক রোগ বিষয়ে সেরা বিশেষজ্ঞ ড. অ্যান্থনি ফউসি বলেছেন, ‘তাত্ত্বিকভাবে আপনার শরীরের সব মিউকোসাল পৃষ্ঠকেই সুরক্ষিত রাখতে হবে। এর মধ্যে নাক ও মুখের সঙ্গে আছে চোখ। তাই আপনাকে গগলস বা আই শিল্ড ব্যবহার করতে হবে। এটা সবার জন্য পালনযোগ্য নয়। তবে যদি আপনি পুরোপুরি সুরক্ষিত থাকতে চান তাহলে এগুলো ব্যবহার করতে হবে।থমাস স্টেইনম্যান মনে করেন ঝুঁকিপূর্ণ স্থানে গেলে অবশ্যই গগলস বা ফেস শিল্ড ব্যবহার করা উচিত। তবে মাস্ক থাকলে এবং সামাজিক দূরত্ব মেনে চললে সবার গগলস বা ফেস শিল্ড ব্যবহারের প্রয়োজন নেই।