ঝালকাঠিতে র‌্যাবের অভিযানে শীর্ষ সন্ত্রাসী মিলু আটক

প্রকাশিত: ১১:৩১ অপরাহ্ণ, আগস্ট ৩, ২০২০ | আপডেট: ১১:৩১:অপরাহ্ণ, আগস্ট ৩, ২০২০

রেজাউল ইসলাম পলাশ, ঝালকাঠিঃ ঝালকাঠির রাজাপুরে র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব-৮) এর অভিযানে ওয়ারেন্ট ভুক্ত শীর্ষ সন্ত্রাসী মিল্লাত হোসেন খান ওরফে মিলু খানকে শুক্তাগর ইউনিয়নের কাঠিপাড়া গ্রামের নিজ বাড়ি থেকে সকালে আটক করা হয়। আটক ৮ মামলার আসামি মিলু রাজাপুর থানার শুক্তাগর ইউনিয়নের কাঠিপাড়া গ্রামের নাজেম আলী খানের ছেলে। সে একজন শীর্ষ সন্ত্রাসী। তাকে পিরোজপুর জেলার স্পেশাল ট্রাইব্যুনাল-৩ নেছারাবাদ থানার জিআর ৭/১৭ ও ২৫/১৭ মামলায় গ্রেপ্তার দেখিয়ে রাজাপুর থানায় হস্তান্তর করা হয় র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়নের সদস্যরা।

রাজাপুর থানা পুলিশ সুত্রে জানা যায়, র‌্যাব-৮, বরিশালের একটি আভিযানিক দল ৩ আগষ্ট সোমবার সকালে গোপন সংবাদের ভিক্তিতে রাজাপুর থানার কাঠিপাড়া এলাকায় অভিযান চালিয়ে পিরোজপুর জেলার স্পেশাল ট্রাইব্যুনাল-৩ নেছারাবাদ থানার জিআর ৭/১৭ ও ২৫/১৭ মামলার একাধিক ওয়ারেন্ট ভুক্ত আসামী শীর্ষ সন্ত্রাসী মিল্লাত হোসেন খান ওরফে মিলু খান (৪২) কে গ্রেপ্তার করে র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়নের সদস্যরা। গ্রেপ্তারকৃত আসামী একজন শীর্ষ সন্ত্রাসী। তার বিরুদ্ধে ডাকাতি, চাঁদাবাজি, হত্যা চেষ্টাসহ ৮ টি মামলা রয়েছে বলে জানা গেছে। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদ শেষে মিলুকে সোমবার (৩ আগষ্ট) সন্ধ্যার পরে রাজাপুর থানায় সোপর্দ করে র‌্যাব-৮। আসামি মিল্লাত হোসেন খান ওরফে মিলু খান এর বিরুদ্ধে নেছারাবাদ থানায় তার বিরুদ্ধে ২০১৭ সালের দায়ের হওয়া অস্ত্র আইনের মামলায় গ্রেফতার দেখানো হয়েছে। এছাড়াও পার্শ্ববর্তী কাউখালী থানার একাধিক মামলার এজাহার ভুক্ত আসামি।

উল্লেখ্য, গ্রেপ্তারকৃত মিল্লাত হোসেন খান ওরফে মিলু খানের বিরুদ্ধে নিজ এলাকায় একই গ্রামের পুলিশ সদস্য আলমগীর হোসেনকে হত্যা চেষ্টাসহ রাজাপুর থানার ০৭/০৭, ১৩৭/০৬, ১৫৩/১২, ৫২/০২, ১২০/০৪ নং ও পিরোজপুর জেলার কাউখালি থানার ২ নং (০৪-০৫-২০০৬) মামলার এজাহার ভুক্ত আসামি।