ইটালিতে ৮ মার্চের পরে অনুপ্রবেশকারী কাউকে বৈধতা দেয়া হবেনা-‘কোররিয়েরা দেল্লা সেরা

প্রকাশিত: ৩:৫২ অপরাহ্ণ, আগস্ট ৪, ২০২০ | আপডেট: ৩:৫২:অপরাহ্ণ, আগস্ট ৪, ২০২০

লন্ডন টাইমস নিউজ।চলতি বছরের ৮ মার্চের পরে সমুদ্র বা স্থলপথ ব্যবহার করে যারা অবৈধভাবে ইতালিতে অনুপ্রবেশ করেছে তাদের বৈধতা প্রদান করা হবেনা বলে ঘোষণা দিয়েছেন দেশটির স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী লুশানা লামোরজেসে। দেশটির প্রথম সারির গণমাধ্যম ‘কোররিয়েরা দেল্লা সেরা’র এক সাক্ষাতকারে এসব কথা বলেন তিনি। এছাড়াও চলতি বছরের ৮ মার্চের পরে ইতালিতে অনুপ্রবেশকারীদের নিজ নিজ দেশে ফেরত পাঠানোর প্রক্রিয়া জোরদার করার কথা বলেছেন দেশটির প্রধানমন্ত্রী জুসেপ্পে কন্তে।

এবিষয়ে দেশটির প্রধানমন্ত্রী জুসেপ্পে কন্তে স্থানীয় প্রভাবশালী গণমাধ্যম ‘লা স্টাম্পা’কে বলেন, ৮ মার্চের পরে ইতালিতে অনুপ্রবেশকারীদের নিজ নিজ দেশে পাঠানোর ব্যাপক চেষ্টা চলছে। আমরা ইতিমধ্যে তিউনিশিয়ার প্রশাসনের সঙ্গে আলোচনা করেছি। তারা তাদের সমুদ্র উপকূলে নজরদারি বাড়ানোর কথা বলেছে। এসব দেশের সঙ্গে যোগাযোগ স্থাপন করে একসঙ্গে এই মানবপাচার ব্যবসা বন্ধ করতে হবে। এছাড়াও আমাদের মন্ত্রীপরিষদের সঙ্গে আলোচনা করেছি। এসব অবৈধ অভিবাসীদের নিজনিজ দেশে ফেরত পাঠাতে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহণ করছি।

এছাড়াও স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী লুশানা বলেন, বর্তমান করোনা ভাইরাসের পরিস্থিতিতে আমরা আমাদের দেশের জনগণদের সুরক্ষা নিশ্চিত করতে কাজ করে যাচ্ছি। এছাড়াও আমরা আগেই বলেছিলাম ‘ইতালির অর্থনীতিক উন্নয়নের জন্য দেশটির কৃষিক্ষাতকে আরও উন্নত করতে হবে এবং প্রচুর জনবল নিয়োগ দিতে হবে। প্রতিবছরের এই সময়ে আমরা বিভিন্ন দেশ থেকে কৃষিক্ষাতে কাজ করানোর জন্য আলাদা শ্রমিক আমদানি করে থাকি কিন্তু চলতি বছরে করোনার কারণে অন্য দেশ থেকে শ্রমিক আনা যাচ্ছে না। তাই এসব সেক্টরে কাজ করার শর্তসাপেক্ষে আমরা ৮ মার্চের পূর্বে ইতালি আসা অবৈধ অভিবাসীদের বৈধ করে নেবার ঘোষণা দিয়েছি। তাই আমাদের পূর্ব ঘোষণানুযায়ী ৮ মার্চের পরে ইতালিতে অনুপ্রবেশকারীদের কোনো প্রকারে বৈধতা প্রদানের সুযোগ থাকবেনা’।

উল্লেখ্য, করোনা পরিস্থিতির পরে দেশের খাদ্যসঙ্কট মোকাবিলায় দেশটির কৃষিক্ষাতে কাজের শর্তসাপেক্ষে অনিয়মিত অভিবাসীদের নিয়মিতকরনের প্রক্রিয়া হাতে নেয় দেশটির সরকার। এরপর থেকে লিবিয়া ও তিউনিশিয়ার সমুদ্রসীমা ব্যবহার করে প্রতিদিনিই অসংখ্য অভিবাসী পাড়ি জমাচ্ছে ইতালিতে।