লেবাননে সরকারের পদত্যাগ

প্রকাশিত: ৩:২১ অপরাহ্ণ, আগস্ট ১০, ২০২০ | আপডেট: ৫:১০:অপরাহ্ণ, আগস্ট ১০, ২০২০

বৈরুতে চলমান আন্দোলনের মুখে পদত্যাগের ঘোষণা দিয়েছেন লেবানিজ প্রধানমন্ত্রী হাসান দিয়াব। দেশটির বেশ কয়েকজন মন্ত্রীর পদত্যাগের পরে আনুষ্ঠানিকভাবে তার এ ঘোষণা এল। এ খবর জানিয়েছে কাতার ভিত্তিক সংবাদ মাধ্যম আলজাজিরা।

এর আগে সোমবার মন্ত্রিপরিষদের অধিবেশন শেষে স্বাস্থ্যমন্ত্রী হামাদ হাসান সাংবাদিকদের জানিয়েছেন, ইতিমধ্যে দেশটির অভ্যন্তরীণ সরকার পদত্যাগ করেছে। প্রধানমন্ত্রী দিয়াবের টেলিভিশন বিবৃতি স্থানীয় সময় সন্ধ্যা সাড়ে ৬টায় প্রচার করা হবে। সে সময় তিনি পদত্যাগের ঘোষণা দিতে পারেন।

মঙ্গলবার রাজধানী বৈরুতে বিস্ফোরণের পর গত শনিবার থেকে দেশটির সাধারণ জনতা বিক্ষোভ প্রদর্শন করতে রাস্তায় নেমে আসেন। দেশটিতে চলমান বিক্ষোভের মুখে তথ্যমন্ত্রী, পরিবেশমন্ত্রীসহ কয়েকজন মন্ত্রী ও সংসদ সদস্য পদত্যাগ করেন।

বৈরুতে বিস্ফোরণের ঘটনায় ২০০ শতাধিকের বেশি মানুষ নিহত হয়েছেন। আর এতে আহত হয়েছেন অনন্ত ৬ হাজারের বেশি মানুষ।

এদিকে, বিস্ফোরণের ধাক্কা সামলে ওঠার জন্য লেবাননকে ২৫ কোটি ইউরো আর্থিক সহায়তা দেয়ার ঘোষণা দিয়েছে আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়। গত ৪ আগস্টের বিস্ফোরণে নিহতের সংখ্যা বেড়ে ২২০ জনে দাঁড়িয়েছে এবং এখনও নিখোঁজ ১১০ জন। এতে আহত হয়েছেন আরও ৬ হাজারের বেশি মানুষ। স্থানীয় সংবাদমাধ্যম আল-মারসাদ অনলাইনে বৈরুতের গভর্নর মারওয়ান আবুদের বরাত দিয়ে হতাহতের এই সংখ্যা জানানো হয়েছে।

বিপজ্জনক রাসায়নিক উপাদান ঘনবসতিপূর্ণ রাজধানী বৈরুতের পাশে মজুদের সঙ্গে রাজনৈতিক এলিটদের দুর্নীতি, সরকারের অবহেলা এবং অব্যবস্থাপনাকে দায়ী করছেন অনেক লেবানিজ। বৈরুতের গভর্নর মারওয়ান আবুদ বলেন, নিখোঁজদের মধ্যে অনেক বিদেশি কর্মী এবং লরি চালক রয়েছেন। তাদের শনাক্ত করা খুবই কঠিন হয়ে পড়েছে বলে মন্তব্য করেছেন তিনি।