হাটহাজারী মাদ্রাসায় আবারও উত্তেজনা, আল্লামা শফীর অফিস ভাংচুর(ভিডিও)

প্রকাশিত: ৮:০২ পূর্বাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ১৭, ২০২০ | আপডেট: ৮:১০:অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ১৭, ২০২০

হাটহাজারী চট্রগ্রাম।হাটহাজারী মাদরাসার শিক্ষার্থীদের দাবি পূরণ না হওয়ায় ফের আন্দোলনে নেমেছেন তারা। আজ বৃহস্পতিবার বেলা সাড়ে এগারোটার দিকে মাদরাসার মাঠে পুনরায় অবস্থান নেন। এসময় মাইকিং করে সাধারণ ছাত্রদেরকে আন্দোলনের জন্য প্রস্তুতি নিতে বলা হয়।

আন্দোলনকারীরা ক্ষিপ্ত হয়ে হেফাজত ইসলামের আমির আল্লামা আহমদ শফী, সহযোগী পরিচালক আল্লামা শেখ আহমদ, আল্লামা ওমর ফারুক ও মাদরাসার শিক্ষা ভবনে ভাঙচুর চালায়।

বৃহস্পতিবার বেলা ১১টার পর মাদ্রাসা মাঠে জমায়েত হয়ে বিক্ষোভ করছেন তারা।

এ সময় মাদ্রাসার পরিচালক ও হেফাজতে ইসলামের আমির আল্লামা আহমদ শফীসহ বিভিন্ন শিক্ষকের রুমে ভাঙচুর চালিয়েছে বিক্ষুব্ধ শিক্ষার্থীরা। ভিডিওতে দেখা যায়, বেশ কিছু বহিরাগত ভাংচুরে অংশ নেয়।

এর আগে বুধবার রাতে ছাত্রদের আন্দোলনের মুখে হাটহাজারী মাদ্রাসা থেকে প্রতিষ্ঠানটির সহকারী শিক্ষা সচিব মাওলানা আনাস মাদানীকে অব্যাহতি দেয়া হয়। এর পর পরিস্থিতি অনেকটাই শান্ত হয়ে যায়।

সোশ্যাল মিডিয়ায় ছড়িয়ে পড়া বিভিন্ন ছবি ও ভিডিওতে দেখা গেছে, বৃহস্পতিবার সকাল থেকে আবারও লাঠি হাতে পুরো মাদ্রাসার নিয়ন্ত্রণ নেন আন্দোলনরত শিক্ষার্থীরা।

মাদ্রাসার সব গেট তালাবদ্ধ করে রাখার পাশাপাশি সহকারী পরিচালক মাওলানা শেখ আহমদ, মুফতি জসিম ও মাওলানা ওমরের রুমে ভাঙচুর চালানো হয়।

হাটহাজারী মাদ্রাসার অফিসিয়াল ফেসবুক পেজে দেয়া এক ভিডিওতে মাদ্রাসার পরিচালক ও হেফাজত আমির আল্লামা আহমদ শফীর কক্ষেও ভাঙচুর চালানোর অভিযোগ করা হয়েছে।

খবর পেয়ে হাটহাজারী উপজেলা নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট, পুলিশ, র‌্যাব, বিভিন্ন গোয়েন্দা সংস্থা দ্রুত ঘটনাস্থলে পৌঁছালেও মাদরাসার সব গেইট বন্ধ থাকায় ভেতরে প্রবেশ করতে পারেনি। পরে আইনশৃঙ্খলা রক্ষায় সতর্কবস্থায় বাইরে অবস্থান করছেন। প্রশাসন যাতে মাদরাসার ভিতরে ঢুকে কোনো ধরনের হস্তক্ষেপ না করেন এজন্য মাদরাসার ছাত্ররা মসজিদের মাইকে বারবার মাইকিং করছিলেন।