অর্থনীতি পুণরুদ্ধারে বরিস জনসন বিলিয়ন বিলিয়ন পাউন্ডের অবকাঠামো উন্নয়ন পরিকল্পণা ঘোষণা, স্টারমার বলছেন নগদ অর্থ যথেষ্ট নয়

প্রকাশিত: ৩:৪৭ অপরাহ্ণ, জুন ৩০, ২০২০ | আপডেট: ৩:৪৭:অপরাহ্ণ, জুন ৩০, ২০২০

সৈয়দ শাহ সেলিম আহমেদ। প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন ব্রিটেনের অর্থনীতির মধ্যে প্রাণের সঞ্চার করতে, অর্থনীতিকে বিধবস্ত অবস্থা থেকে তুলতে, করোনার মহাপ্রাদুর্ভাব থেকে ব্রিটেনের অর্থনীতি, যুবকদের চাকুরী, কর্মসংস্থান বৃদ্ধি, জনগনের জীবন মান পুণর্নির্মাণের লক্ষ্যে আজকে ৫ বিলিয়ন পাউন্ডের অবকাঠামো সহ বিলিয়ন বিলিয়ন পাউন্ডের এক বিশাল উন্নয়ন প্রকল্পের ঘোষণা দেন। ১৯৩০ সালের মার্কিন প্রেসিডেন্ট ফ্রাংকলিন ডিলানো রুজভেল্টের আদলে অবকাঠামোগত উন্নয়ন প্রকল্প হাতে নিয়ে জনসন এটাকে রুজভেল্ট বিপ্লব হিসেবে আখ্যায়িত করছেন।

জনসনের এই বিশাল অর্থনৈতিক কর্মপরিকল্পনা ব্রিটেনে শুরু হয়েছে ব্যাপক আলোচনা সমালোচনা। বিরোধীদলীয় নেতা স্যার কেয়ার স্টারমার বলছেন প্যানডেমিকের প্রাদুর্ভাবের বিপদ কাঠিয়ে উঠার জন্য নগদ অর্থ প্রদানই যথেষ্ট নয়।

বরিস জনসন, তার উচ্চাভিলাষী এই পরিকল্পণায় স্কুল, বাড়ি, হাসপাতাল নির্মাণের ব্যাপক পরিকল্পণায় আগামী ৮ বছরে ১৮০,০০০ নতুন ঘর তৈরির পরিকল্পণার কথা জানিয়েছেন। ২০২০-২০২১  আর্থিক বছরের শেষ দিকে শুরু হবে ১ বিলিয়ন পাউন্ডে ৫০টি প্রজেক্ট যাতে দশ বছর মেয়াদী স্কুল পুণনির্মানের কর্মসূচী, ১০০ মিলিয়ন ব্যায়ে ২৯টি নেটওয়ার্ক প্রোগ্রাম, ১.৫ বিলিয়ন পাউন্ড ব্যায়ে হাসপাতাল মেইন্ট্যানান্স প্রোগ্রাম উল্লেখযোগ্য। ৫৬০ মিলিয়ন এবং ২০০ মিলিয়ন খরচ যাবে স্কুলের সংস্কার  ও আপগ্রেডে উন্নীত,১৪২ মিলিয়ন যাবে ডিজিটাল উন্নয়নে সহ তিন বছরে ১৫০ বিলিয়ন ইত্যাদি উন্নয়ন প্রকল্প রয়েছে।

স্যার স্টারমার বলছেন, এটা নতুন কোন বিষয় নয়, যা মূলত ১০০ পাউন্ড করে পার পার্সন, এটাই যথেষ্ট নয়। এরকম প্রতিশ্রুতি অসংখ্য মেনিফেস্টোতে প্রতিশ্রুতি দেয়া হয়েছে আগেও।

জনসন জানিয়েছেন, তার প্যাকেজের আওতায় ৫ বিলিয়ন যাবে মূলধন বিনিয়োগ ও চাকুরী ও কর্মসংস্থান বৃদ্ধি ও অর্থনীতি পুণরুদ্ধারে।