ছাত্রীদের অনৈতিক প্রস্তাব দেয়ার অভিযোগে শিক্ষক বহিষ্কার

প্রকাশিত: ৮:৩৩ অপরাহ্ণ, জুন ৩০, ২০২০ | আপডেট: ৮:৩৩:অপরাহ্ণ, জুন ৩০, ২০২০

নিজস্ব সংবাদ দাতা।গোপালগঞ্জের কোটালীপাড়ায় ছাত্রীদের উত্ত্যক্ত ও অনৈতিক প্রস্তাব দেয়ার অভিযোগে শিক্ষককে বিদ্যালয় থেকে সাময়িক বহিষ্কার করা হয়েছে। এ ঘটনার তদন্তে ৫ সদস্যের তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। কমিটিকে ৭ দিনের মধ্যে তদন্ত প্রতিবেদন দাখিল করতে বলা হয়েছে। মিলন হোসেন ৮ বছর আগে কোটালীপাড়া এস এন ইনস্টিটিউশনের বিজ্ঞান বিভাগে সহকারী শিক্ষক হিসেবে যোগদান করেন। তারপর থেকেই তিনি ছাত্রীদের উত্ত্যক্ত ও অনৈতিক প্রস্তাব দিয়ে আসছেন বলে জানিয়েছেন এলাকাবাসী। একাধিক ছাত্রীকে উত্ত্যক্ত ও অনৈতিক প্রস্তাব দেয়ার ঘটনাকে কেন্দ্র করে একাধিক বার শালিস বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়েছে। সর্বশেষ গত বুধবার কলেজ পড়–য়া ওই বিদ্যালয়টির এক সাবেক ছাত্রীকে অনৈতিক প্রস্তাব দেন ওই শিক্ষক। বিষয়টি ওই ছাত্রী তার অভিভাবকদের জানায়। ওই ছাত্রীর অভিভাবক ঘটনাটি বিদ্যালয় পরিচালনা পর্ষদের সভাপতি আতিকুজ্জামান বাদলকে জানান। আতিকুজ্জামান বাদল গত বৃহস্পতিবার বিদ্যালয় পরিচালনা পর্ষদের জরুরী সভা ডেকে শিক্ষক মিলন হোসেনকে সাময়িক বহিষ্কার করে ৫ সদস্যের তদন্ত কমিটি গঠন করেন। এই সভা থেকে ৭দিনের মধ্যে তদন্ত কমিটিকে রিপোর্ট দিতে বলা হয়। বিদ্যালয় পরিচালনা পর্ষদের সভাপতি আতিকুজ্জামান বাদল বলেন, মিলন হোসেন এ বিদ্যালয়ে যোগদানের পর থেকেই একাধিক ছাত্রীকে উত্যক্ত ও অনৈতিক প্রস্তাব দিয়েছেন।